শিলেমানপুর গণহত্যা/ Shilemanpur Genocide

পাইকগাছা উপজেলার গদাইপুর ইউনিয়নের আগড়ঘাটার শিলেমানপুরে ২৭ জুলাই মতান্তরে ২৮ জুলাই রাজাকাররা ভয়াবহ গণহত্যা চালায়। কপিলমুনি রাজাকার ক্যাম্প থেকে রাজাকাররা শাহজাহান চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এই গণহত্যা চালায়। তারা স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধবিরোধীদের সহায়তায় ঐ দিন সকাল থেকে পাইকগাছা বাজারের বিভিন্ন স্থান ঘুরে ফিরে দেখতে থাকে।

তাদের সেই বিচরণ এলাকার মানুষের মনে নানারকম সন্দেহ সৃষ্টি করে। কিন্তু রাজাকাররা ঐ রাতেই সংগ্রাম পরিষদের অন্যতম নেতা শেখ মাহাতাব উদ্দীন মনি
, ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান, গাজী সামসুর রহমান, রইসউদ্দীন মিস্ত্রী, মনোহর, নুনু বৈরাগীসহ কমপক্ষে ৩০ জনকে হত্যা করে। রাতের শেষ প্রহরে তাদের সবাইকে শিলেমানপুর চরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়।

ঐ একই দিন হরিঢালী ইউনিয়নের শলুয়ার মুচিপাড়ায় মামুদকাটির মণিনাথকে রাজাকাররা গুলি করে হত্যা করে।

 

***

 

 

Shilemanpur is situated in Agorhghata Union under Paikgacha Upazila. Razakar conducted a terrible massacre in this place on 27 July (some says 28 July). Razakar Shahjahan was the leader of this genocide. At least 30 people lost their lives in this genocide.  

 

নিকটবর্তী আরও স্থান
  • post-image
    শিলেমানপুর গণহত্যা/ Shilemanpur Genocide
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">পাইকগাছা উপজেলার গদাইপুর ইউনিয়নের আগড়ঘাটার শিলেমানপুরে ২৭ জুলাই মতান্তরে ২৮ জুলাই রাজাকাররা ভয়াবহ গণহত্যা চালায়। কপিলমুনি রাজাকার ক্যাম্প</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">&nbsp;থেকে রাজাকাররা শাহজাহান চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এই গণহত্যা চালায়। তারা স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধবিরোধীদের সহায়তায় ঐ দিন সকাল থেকে পাইকগাছা বাজারের বিভিন্ন স্থান ঘুরে ফিরে দেখতে থাকে। <br /><br />তাদের সেই বিচরণ এলাকার মানুষের মনে নানারকম সন্দেহ সৃষ্টি করে। কিন্তু রাজাকাররা ঐ রাতেই সংগ্রাম পরিষদের অন্যতম নেতা শেখ মাহাতাব উদ্দীন মনি</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">গাজী সামসুর রহমান</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">রইসউদ্দীন মিস্ত্রী</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">মনোহর</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">নুনু বৈরাগীসহ কমপক্ষে ৩০ জনকে হত্যা করে। রাতের শেষ প্রহরে তাদের সবাইকে শিলেমানপুর চরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়।<br /><br /> ঐ একই দিন হরিঢালী ইউনিয়নের শলুয়ার মুচিপাড়ায় মামুদকাটির মণিনাথকে রাজাকাররা গুলি করে হত্যা করে।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14pt; line-height: 107%; font-family: Cambria, serif; background-image: initial; background-position: initial; background-size: initial; background-repeat: initial; background-attachment: initial; background-origin: initial; background-clip: initial;">Shilemanpur is situated in Agorhghata Union under Paikgacha Upazila. Razakar conducted a terrible massacre in this place on 27 July (some says 28 July). Razakar Shahjahan was the leader of this genocide. At least 30 people lost their lives in this genocide. &nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p>
  • post-image
    কপিলমুনি রাজাকার ক্যাম্প গণহত্যা/ Kapilmuni razakar camp genocide
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি অনেক আগে থেকেই গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত। এই এলাকাটি ছিল হিন্দু অধ্যূষিত। কপোতাক্ষ নদের তীরে এই বাণিজ্য কেন্দ্রের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা রায়সাহেব বিনোদবিহারী সাধুর বাড়িকে ঘিরে রাজাকাররা শক্ত ঘাঁটি গড়ে তোলে। বৃহত্তর খুলনা অঞ্চলে এই রাজাকার ঘাঁটিটি ছিল সবচেয়ে বড় এবং ভয়ংকর। এলাকাটিতে অধিক সংখ্যায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাস হওয়ায় অত্যাচার নির্যাতন ছিল সীমাহীন। হত্যা</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ধর্ষণ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">লুটপাট</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">অগ্নিসংযোগ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ধর্মান্তরিতকরণ সকল রকম অত্যাচার নির্যাতন এই ক্যাম্পে সংঘটিত হয়েছে। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">প্রথমদিকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তারপর মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষদের ধরে এনে নির্মমভাবে হত্যা ও নির্যাতন করেছে। ক্যাম্প স্থাপনের পর প্রথমেই তারা ডাঃ ফণিভূষণ নাথ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">উমাপদ দেও চৈতন্য মল্লিককে ধরে এনে কপিলমুনি বাজারের ফুলতলা নামক স্থানে কপোতাক্ষ নদের ঘাটে হত্যা করে পানিতে ভাসিয়ে দেয়। হিন্দু ধর্মাবলম্বী মনি সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জ্ঞান সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">নরেন সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">কানু পোদ্দার</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তারাপদ ডাক্তার</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জিতেন্দ্রনাথ সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">শান্তিরাম সিংসহ বহু হিন্দুকে তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>যখন তখন যাকে তাকে ধরে এনে ইচ্ছামত হত্যা করতো। স্থানীয় মুসলীম লীগ ও শান্তি কমিটির সদস্যদের দেওয়া তালিকা অনুযায়ী তারা এলাকার বিভিন্ন বাড়ি লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করতো</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">হিন্দু নারীদের ধরে এনে ধর্ষণ করে হত্যা করতো। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ঐ ক্যাম্পে ৬ টি কক্ষ নির্ধারিত ছিল ধর্ষণ অত্যাচারের জন্য। বহু নারীকে ধর্ষণের পর পেট ফেঁড়ে নদীর পানিতে ফেলে দিত। নভেম্বর মাসের শেষ দিকে রত্না নামের একটি মেয়েকে সারারাত অত্যাচার করার পর তাকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দিলে তার ভাসমান লাশ দেখে স্থানীয় মানুষের মনে তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। মুক্তিযোদ্ধারা একাধিকবার রাজাকারদের এই ক্যাম্পেপ অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হয়। অবশেষে ডিসেম্বরের ৮ -৯ তারিখে মুজিব বাহিনীর কমান্ডার কামরুজ্জামান টুকুর নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা এই রাজাকার ক্যাম্পের পতন ঘটায়। ক্যাম্পের ভেতরে একটি কক্ষের দেয়ালে একজনকে পেরেক দিয়ে আটকে রাখা দেখে মুক্তিযোদ্ধারা। তিনি হলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তালা উপজেলার মাছিয়াড়া গ্রামের রহিম বক্স গাজীর ছেলে সৈয়দ গাজী। সৈয়দ ঐ ক্যাম্পে রাজাকারদের সাথে থাকতেন। প্রকৃতপক্ষে তিনি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধাদের গোয়েন্দা। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">রাজাকাররা তার প্রকৃত পরিচয় জানতে পারলে তাকে অকথ্য নির্যাতন করে হত্যার পর দেয়ালে পেরেক দিয়ে আটকে রাখে। রাজাকার ক্যাম্প পতনের পর এখান থেকে ধরা পড়া ১৫১ জন রাজাকারকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করা হয়। এই ক্যাম্প পতনের পর সেখান থেকে প্রাপ্ত কাগজপত্র থেকে জানা যায় রাজাকাররা ১৬০১ মতান্তরে ১৬১০ জনকে হত্যা করে। আমরা মনে করি জুন-জুলাই মাস থেকে শুরু করে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত এই দীর্ঘসময়ে এই বিশাল ঘাঁটি থেকে কমপক্ষে ৫০০০ মানুষকে রাজাকাররা নির্মমভাবে হত্যা করে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">***&nbsp;&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">Razakars </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;">set up their base camp in the</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN"> house of Binodbihari Sadhu. This camp was one of the biggest and vicious camp of Khulna area. As a large number of Hindus used to live in this area, Hindus were the primary target of Razakars. Murder, rape, looting, arson, conversion of religion, torture &ndash; everything took place here during the whole war time. They brutally tortured and killed freedom fighters and supporters of Bengali nationalism. Local members of Muslim League and Peace committee had a list, and they used to loot houses, abduct and rape women according to this list. There were </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">6 </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">rooms in the camp only for rape and torturing. Freedom fighters liberated the camp after several attempts. At least </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">5000 </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">people were killed in this camp from June-July.</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;" lang="AR-SA">&nbsp;</span></p>
  • post-image
    কপিলমুনি রাজাকার ক্যাম্প বধ্যভূমি/ Kapilmuni razakar camp mass-killing site
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি অনেক আগে থেকেই গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত। এই এলাকাটি ছিল হিন্দু অধ্যুষিত। কপোতাক্ষ নদের তীরে এই বাণিজ্য কেন্দ্রের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা রায়সাহেব বিনোদবিহারী সাধুর বাড়িকে ঘিরে রাজাকাররা শক্ত ঘাঁটি গড়ে তোলে। বৃহত্তর খুলনা অঞ্চলে এই রাজাকার ঘাঁটিটি ছিল সবচেয়ে বড় এবং ভয়ংকর। এলাকাটিতে অধিক সংখ্যায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাস হওয়ায় অত্যাচার নির্যাতন ছিল সীমাহীন। হত্যা</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ধর্ষণ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">লুটপাট</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">অগ্নিসংযোগ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ধর্মান্তরিত-করণ সকল রকম অত্যাচার নির্যাতন এই ক্যাম্পে সংঘটিত হয়েছে। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">প্রথমদিকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তারপর মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষদের ধরে এনে নির্মমভাবে হত্যা ও নির্যাতন করেছে। ক্যাম্প স্থাপনের পর প্রথমেই তারা ডাঃ ফণিভূষণ নাথ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">উমাপদ দেও চৈতন্য মল্লিককে ধরে এনে কপিলমুনি বাজারের ফুলতলা নামক স্থানে কপোতাক্ষ নদের ঘাটে হত্যা করে পানিতে ভাসিয়ে দেয়। হিন্দু ধর্মাবলম্বী মনি সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জ্ঞান সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">নরেন সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">কানু পোদ্দার</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তারাপদ ডাক্তার</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জিতেন্দ্রনাথ সিং</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">শান্তিরাম সিংসহ বহু হিন্দুকে তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>যখন তখন যাকে তাকে ধরে এনে ইচ্ছামত হত্যা করতো। স্থানীয় মুসলিম লীগ ও শান্তি কমিটির সদস্যদের দেওয়া তালিকা অনুযায়ী তারা এলাকার বিভিন্ন বাড়ি লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করতো</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">হিন্দু নারীদের ধরে এনে ধর্ষণ করে হত্যা করতো। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ঐ ক্যাম্পে ৬ টি কক্ষ নির্ধারিত ছিল ধর্ষণ অত্যাচারের জন্য। বহু নারীকে ধর্ষণের পর পেট ফুঁড়ে নদীর পানিতে ফেলে দিত। নভেম্বর মাসের শেষ দিকে রত্না নামের একটি মেয়েকে সারারাত অত্যাচার করার পর তাকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দিলে তার ভাসমান লাশ দেখে স্থানীয় মানুষের মনে তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। মুক্তিযোদ্ধারা একাধিকবার রাজাকারদের এই ক্যাম্পে<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হয়। অবশেষে ডিসেম্বরের ৮ -৯ তারিখে মুজিব বাহিনীর কমান্ডার কামরুজ্জামান টুকুর নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা এই রাজাকার ক্যাম্পের পতন ঘটায়। ক্যাম্পের ভেতরে একটি কক্ষের দেয়ালে একজনকে পেরেক দিয়ে আটকে রাখা দেখে মুক্তিযোদ্ধারা। তিনি হলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তালা উপজেলার মাছিয়াড়া গ্রামের রহিম বক্স গাজীর ছেলে সৈয়দ গাজী। সৈয়দ ঐ ক্যাম্পে রাজাকারদের সাথে থাকতেন। প্রকৃতপক্ষে তিনি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধাদের গোয়েন্দা।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">রাজাকাররা তার প্রকৃত পরিচয় জানতে পারলে তাকে অকথ্য নির্যাতন করে হত্যার পর দেয়ালে পেরেক দিয়ে আটকে রাখে। রাজাকার ক্যাম্প পতনের পর এখান থেকে ধরা পড়া ১৫১ জন রাজাকারকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করা হয়। এই ক্যাম্প পতনের পর সেখান থেকে প্রাপ্ত কাগজপত্র থেকে জানা যায় রাজাকাররা ১৬০১ মতান্তরে ১৬১০ জনকে হত্যা করে। আমরা মনে করি জুন-জুলাই মাস থেকে শুরু করে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত এই দীর্ঘসময়ে এই বিশাল ঘাঁটি থেকে কমপক্ষে ৫০০০ মানুষকে রাজাকাররা নির্মমভাবে হত্যা করে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp; </span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">***&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">Razakars set up their base camp in the house of Binodbihari Sadhu. This camp was one of the biggest and vicious camp of Khulna area. As a large number of Hindus used to live in this area, Hindus were the primary target of Razakars. Murder, rape, looting, arson, conversion of religion, torture &ndash; everything took place here during the whole war time. They brutally tortured and killed freedom fighters and supporters of Bengali nationalism. Local members of Muslim League and Peace committee had a list, and they used to loot houses, abduct and rape women according to this list. There were </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">6</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN"> rooms in the camp only for rape and torturing. Freedom fighters liberated the camp after several attempts. At least </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">5000</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN"> people were killed in this camp from June-July.</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-ansi-language: EN;" lang="EN">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-family: 'Vrinda',sans-serif; mso-ascii-font-family: Calibri; mso-ascii-theme-font: minor-latin; mso-hansi-font-family: Calibri; mso-hansi-theme-font: minor-latin; mso-bidi-theme-font: minor-bidi;" lang="AR-SA">&nbsp;</span></p>
  • post-image
    জালালপুরের গণহত্যা/ Jalalpur Genocide
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তালা থানার জালালপুর একটি হিন্দু অধ্যুষিত গ্রাম। যার পার্শ্বে শ্রীমন্তকাটি গ্রাম। এই গ্রামে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক চেয়ারম্যান বি. এ করিমের বাড়ীতে মুক্তিযোদ্ধাদের একটি ক্যাম্প ছিল। সম্ভবতঃ ৬ জুন উক্ত গ্রামদ্বয়ের পূর্ব পার্শ্বে প্রবাহিত কপোতাক্ষ নদ দিয়ে পাক বাহিনীর একটি খাদ্য সামগ্রী বোঝাই নৌকা যাচ্ছিল। এমন সময় মুক্তিযোদ্ধারা অতর্কিত উক্ত লঞ্চে হানা দেয় এবং পাকসেনাদের দু&rsquo;জন দালালকে গুলি করে হত্যা করে। ফলে ৭ জুন কপিলমুনি থেকে রাজাকার ও পাকসেনাদের এক বিশাল বাহিনী ভারী অস্ত্র-শস্ত্রসহ জালালপুর ও শ্রীমন্তকাটি গ্রামে ঢুকে ১২ জন নিরীহ হিন্দু-মুসলিম নর-নারীকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। এরপর পাকিস্তানি বাহিনী শ্রীমন্তকাটি গ্রামে গিয়ে মোড়ল বাড়ীর কয়েকটি বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং অনেককে অত্যাচার করে। </span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;">Jalalpur is a Hindu inhabitant village of Tala Thana. Sreemantakati is another village beside Jalalpur. There was a camp of freedom fighters in the house of B A Karim, one of the organizers of the Liberation War. It is likely that on </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">6</span><sup><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;">th</span></sup><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;"> June, a boat of Pakistani Army, carrying the food items for them, were going through the river Kapotaksha. At that time, the freedom fighters ambushed at the launch and </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">2</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;"> people from Pakistani army were shot dead. As a consequence, a large force of Razakars and Pakistani army from Kapilmuni entered the village of Jalalpur and Sreemantakati with heavy weapons and brutally killed </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">12</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;"> innocent Hindu-Muslim men and women. Afterwards they went to the village of Sreemantakati and set fire to some of the houses and tortured many people. </span></p>
  • post-image
    মাগুরা ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামে গণকবর
    <p>মাগুরা ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামে গণকবর</p>
  • post-image
    মাগুরা পূর্বপাড়া গণহত্যা
    <p>মাগুরা পূর্বপাড়া গণহত্যা</p>
  • post-image
    মাগুরা খেয়াঘাট গণহত্যা
    <p>াগুরা খেয়াঘাট গণহত্যা</p>
  • post-image
    চাদকাটি শ্মশানঘাট রাস্তার পাশে গণহত্যা
    <p>চাদকাটি শ্মশানঘাট রাস্তার পাশে গণহত্যা</p>
  • post-image
    বারোআড়িয়া গণহত্যা, ৪ নং সুরখালী ইউনিয়ন/ Baroariya genocide, 4 No. Surkhali Union
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">বটিয়াঘাটা সদর থেকে প্রায় ১৯ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত বারোআড়িয়া গ্রাম।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>এই গ্রামের রাজাকাররা মোজাহার ও হাতেমের নেতৃত্বে এক রাতে স্থানীয় গুরুপদের বাড়িতে ঝাপিয়ে পড়ে।</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN"> হামলাকারীরা গুরুপদ</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">তার ২০ ও ১১বছর বয়সী দুই ছেলে অংশুপতি ও খোকন কে বাড়ির পাশে নদীর চরে হাটু পর্যন্ত পুঁতে গুলি করে হত্যা করে এবং পাঁচ মাস বয়সী কন্যা পারুলকে টেনে হিচড়ে নিয়ে আছড়ে মেরে ফেলে। গুরুপদের স্ত্রী গুরুদাসী ও ১৬ বছরের কন্যা অঞ্জলিকে তারা তাদের ক্যাম্পে</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">&nbsp;আটকে রেখে দীর্ঘদিন অত্যাচার নির্যাতন করে। <br /><br />মুক্তিযোদ্ধারা কামরুজ্জামান টুকুর নেতৃত্বে রাজাকার ক্যাম্প</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">টি উচ্ছেদ করলে সেখান থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন গুরুদাসীকে তারা উদ্ধার করে</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">কিন্তু অঞ্জলিকে আর পাওয়া যায় নি। স্বাধীন বাংলাদেশে খুলনা শহরে গুরুদাসী পাগলী বেশে আমৃত্যু ঘুরে বেড়িয়েছে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;</span></span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN"><span style="mso-spacerun: yes;">***</span></span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali';">Baroariya village is situated about 19 kilometers south-west of Batiaghata Sadar. In one-night, local Razakars attacked the house of Gurupod. They killed his two sons (age 20 and 11) and his 5-month-old daughter. They also abducted his wife Gurudasi and 16-year-old daughter Anajali. His wife and Anjali were tortured brutally by keeping them in the death camp. They killed Anjali afterwards, and Gurudasi was found alive after the liberation.&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p>
  • post-image
    বারোয়াড়িয়া রাজাকার ক্যাম্প নিযার্তন কেন্দ্র, ৪ নং সুরখালী ইউনিয়ন / Baroariya Razakar camp torture center, 4 No. Surkhali Union
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">বটিয়াঘাটা সদর থেকে প্রায় ১৯ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত বারোয়াড়িয়া গ্রাম।</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">একাত্তরে এই গ্রামের অধিকাংশ মানুষ ছিল হিন্দু সম্প্রদায়ের। এপ্রিল-মে মাসের মধ্যে গ্রামের বেশির ভাগ মানুষ ভারতে পাড়ি জমায়।</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ঐ গ্রামের মণি গোলদারের ফেলে যাওয়া দোতলা বাড়িতে রাজাকাররা তাদের ক্যাম্প স্থাপন করে। ঐ ক্যাম্পে প্রতিদিন বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ ধরে এনে ভীষণ নির্যাতন করা হতো।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;">***</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black;">Baroariya village is situated about 19 kilometers south-west of Batiaghata Sadar. Most of the villagers belonged to Hindu community and a large portion of them went to India as a refugee by April-May. Razakar set up their camp at the house of Moni Goldar, which was an abandoned house. Everyday numerous people were tortured in the camp. </span></p>