রাধাবল্লভ বধ্যভূমি, বাগেরহাট

রাধাবল্লভ বধ্যভূমি

রাধাবল্লভ স্কুলে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছিল দশম শ্রেণির ছাত্রী মঞ্জু রাণী অধিকারীকে এবং অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনকে। 

Manju Rani Adhikari, a 10th class student, and a few others were tortured to death at Radhaballav School.

 

নিকটবর্তী আরও স্থান
  • post-image
    রাধা বল্লভ বিদ্যালয় নির্যাতন কেন্দ্র, বাগেরহাট
    <p>রাধা বল্লভ বিদ্যালয় নির্যাতন কেন্দ্র</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">বাগেরহাট শহর সংলগ্ন রাধাবল্লভ গ্রামের বলরাম অধিকারীর মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী মঞ্জু রাণী অধিকারীকে নির্যাতনের পর রাজাকারেরা হত্যা করেছিল নৃশংসভাবে। রাজাকারের দল দুইভাগে বিভক্ত হয়ে বচসায় লিপ্ত হয় কোন দল মঞ্জুকে নিয়ে যাবে এনিয়ে। নির্যাতনের পর বিভৎসভাবে উলঙ্গ মঞ্জু রাণীর দুই পা দুই দল দুই দিক থেকে ধরে টেনে ছিঁড়ে ফেলে। রাধাবল্লভ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলেছিল এ নির্যাতন এবং হত্যা।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;&nbsp;</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="mso-spacerun: yes;"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">Manju Rani Adhikari, a 10th class student, daughter of Balram Adhikari of Radhaballav village near Bagerhat town, was brutally killed by the Razakars after being tortured brutally. The Razakars split into two groups and started arguing over which party would take Manju. After torturing, the two legs of the naked Monju Rani were grabbed from both sides and torn apart. The torture and killing took place at Radhaballav Primary School.</span></span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    রাধাবল্লভ বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p>রাধাবল্লভ বধ্যভূমি</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">রাধাবল্লভ স্কুলে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছিল দশম শ্রেণির ছাত্রী মঞ্জু রাণী অধিকারীকে এবং অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনকে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="mso-spacerun: yes;"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">Manju Rani Adhikari, a 10th class student, and a few others were tortured to death at Radhaballav School.</span></span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    কাঠুয়া বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p>কাঠুয়া বধ্যভূমি</p>
  • post-image
    দড়াটানা ঘাট বধ্যভুমি, বাগেরহাট
    <p class="p1">দড়াটানা ঘাট বধ্যভূমি</p> <p class="p1"><span style="font-family: SutonnyOMJ; font-size: 14pt; text-align: justify;">বাগেরহাট সদরের খারদার গ্রামের সরদার বাড়ি থেকে তিনজনকে ধরে নিয়ে দড়াটানা ফেরিঘাটে গুলি করে এবং বেয়নেট চার্জ করে হত্যা করে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী।</span></p> <p class="p1">&nbsp;<span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 12pt;">The Pakistani aggressors captured three people from Sardar's house in Khardar village of Bagerhat Sadar and killed them at Daratana ferry terminal.</span></p>
  • post-image
    মজিদ কসাইয়ের বাড়ি নির্যাতন কেন্দ্র, বাগেরহাট
    <p>মজিদ কসাইয়ের বাড়ি নির্যাতন কেন্দ্র</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ব্যবসায়ী সখীচরণের বাড়িটা দখল করে মজিদ কসাই সেখানে নরক রচনা করেছিল। মজিদ কসাইয়ের দখল করা এ বাড়িতে নির্যাতনের শিকার একজনের ভাষ্য থেকে জানা যায়- নদীর পাশে ছিল সখীচরণ দেবনাথের এ বাড়িটি। ঐ বাড়িতে মজিদ কসাই মেহেরুন্নেসা মীরাকে নিয়ে যায় এবং তাকে নির্যাতন করে। এরপর মীরাকে নিয়ে দেওয়া হয় ওয়াপদা রেস্ট হাউসে রাজাকার ক্যাম্পে। এভাবে অনেক নারীকে নির্যাতন করা হত এ বাড়িতে। বাড়িটি নদীর পাশে হওয়ায় সংলগ্ন নদীতে রচিত হয়েছিল বধ্যভূমি।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">Majid Kasai(butcher)occupied the house of businessman Sakhicharan and turned it a hell . It is known from the narration of one of the victims of torture in the house occupied by Majid Kasai- this house of Sakhicharan Debnath was near the river. Majid took Meherunnesa Meera and tortured her in that house. Meera was then taken to the Razakar camp at Wapda Rest House. Thus, many women were tortured in this house. Since the house was beside the river, the river was used as a mass killing site.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    বৈটপুর বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p class="p1"><span class="s1">বৈটপুর&nbsp;</span><span class="s1">বধ্যভূমি</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">১০ অক্টোব রবিবার গভীর রাতে বাগেরহাট রাজাকার বাহিনীর অর্ধশতাধিক সদস্য সিরাজ মাষ্টারের নেতৃত্বে বৈটপুর হিন্দুপাড়ায় আক্রমণ চালায়। হত্যা করা হয় হরিশ গুহ</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">নিলু গুহ</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">প্রদীপ গুহ এবং সুশীল মজুমদারকে।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">On Sunday night, 10 October, more than 50 members of the Bagerhat Razakar force led by Siraj Master attacked Baitpur Hindupara. Harish Guhu, Nilu Guhu, Pradeep Guhu and Sushil Majumder were killed.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    বৈটপুর গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">বৈটপুর গণহত্যা</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">১০ অক্টোবর গভীর রাতে বাগেরহাট রাজাকার বাহিনীর অর্ধশতাধিক সদস্য সিরাজ মাস্টারের নেতৃত্বে বৈটপুর হিন্দুপাড়ায় আক্রমণ চালায়। রাত প্রায় ৩টার দিকে রাজাকার বাহিনীর সদস্যরা হরিশ গুহের বাড়িটা চারিদিক থেকে ঘিরে ফেলে নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিয়ে হরিশ গুহ ও তার পুত্র প্রদীপ গুহ ওরফে নীলু গুহকে ডাকাডাকি করতে থাকে। কিছুক্ষণের মধ্যেই রাজাকার বাহিনী দরজা ভেঙে বাড়ির মধ্যে ঢুকে হরিশ গুহ এবং তার ছোট ভাই গৌরপদ গুহকে ধরে বাইরে নিয়ে আসে। রাজাকাররা একইভাবে পাশের বাড়ির থেকে বোবা একটি কাজের লোকসহ প্রদীপ গুহ এবং সুশীল মজুমদারকেও ধরে আনে। এরপর একদল নওমুসলিমদের জবাই করার কাজে ব্যস্ত হয় এবং অন্যদল লুটপাটে মনোনিবেশ করে।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">In the mid-night on 10 October, more than 50 members of the Bagerhat Razakar force led by Siraj Master attacked Baitpur Hindupara. At around 3 am, the members of the Razakar forces surrounded Harish Guha's house and started calling Harish Guha and his son Pradeep Guha alias Nilu Guha pretending them as freedom fighters. After a while, the Razakars broke down the door and entered the house, grabbed Harish Guha and his younger brother Gaurapada Guha and brought them out. The Razakars similarly captured Pradeep Guha and Sushil Majumdar along with a dumb worker from the house next door. Then one group&nbsp; engaged in the slaughtering of the neo-Muslims and the other concentrated on looting.</span></span></p>
  • post-image
    দশানি গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">দশানি-বাদে কাড়াপাড়া-হরিণখানা গণহত্যা</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">বাগেরহাট শহরে ঢোকার মুখে পাকিস্তানী বাহিনী গুলি করতে করতে অগ্রসর হয়। তাদের নির্বিচার ব্রাশফায়ারে দশানী গ্রামের কয়েকজন মারা যান। একজন মারা যান শঙ্কর পুকুরের পাশে। এরপর তারা হত্যা করে নূর মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা ও খাদেম মোঃ মোজাহার মুন্সীকে। খান সেনাদের কয়েকজন তৃষ্ণার্ত হয়ে খাদেমের কাছে পানি খেতে চাইলে তিনি তাদেরকে পানি খাওয়ান। পানি খাওয়ার পর পাকিস্তানী বাহিনীর এক সৈনিক তাঁকে গুলি করে হত্যা করে। পাকিস্তানী বাহিনী বাদে</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">কাড়াপাড়ায় হামানের পোলের কাছে হত্যা করে খোকাকে</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">নূর মসজিদের কাছে আদম আলীকে</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">রেডিও মেকার আশ্বাব আলীকে</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">বিএসসি ছাত্র আব্দুল ওহাবকে ও হরিণখানার মোঃ হুমায়ুনকে। এছাড়াও ফুলতলার মোড়ে আব্দুল খালেককে এবং অজ্ঞাত</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">পরিচয় আরো তিনজন রিক্সাওয়ালাকে গুলি করে হত্যা করে তারা।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">The Pakistani forces entered to Bagerhat town with open fireing. Some of the people from Dashani village died in their indiscriminate brushfire. One died near the Shankar pond. Then the Pakistani army killed Md. Mozahar Munshi, the founder and Khadem (who serves in the mosque) of Nur Mosque. When some of the Khan's soldiers were thirsty and wanted to drink water from the Khadem, he gave them water. After drinking water, he was shot by a Pakistani soldier. The Pakistani forces killed Khoka near Haman's pole in Badekarapara, Adam Ali near Noor Mosque, radio maker Ashbab Ali, BSc student Abdul Wahab and Mohammad Humayun of Harinkhana. They also killed Abdul Khaleq and three other unidentified rickshaw pullers at the Fultala intersection.</span></span></p>
  • post-image
    দর্শানী গণকবর, বাগেরহাট
    <p>দর্শানী গণকবর</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">২৪ এপ্রিল পাকিস্তানী বাহিনী কাড়াপাড়া-দশানী হয়ে বাগেরহাট শহরে ঢোকার পথে অনেক জায়গায় নির্মম গণহত্যা চালায়। সেইসব গণহত্যার কোনো গণকবর চিহ্নিত না হলেও দশানী মোড়ে সম্প্রতি একটি স্থাপনা নির্মাণ করা হয়</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">যেটিকে ঐ দিনের গণহত্যার প্রেক্ষিতে গণকবর হিসেবে চিহ্নিত করা যায়।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">On 24 April, the Pakistani forces carried out a brutal genocide in many places on their way to Bagerhat town through Karapara-Dashani. Although no mass grave of those genocides has been identified, an establishment was recently constructed at Dashani intersection, which can be identified as mass grave in the context of genocide.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    মোকলেস ডাক্তারের বাড়ি নির্যাতন কেন্দ্র, বাগেরহাট
    <p>মোকলেস ডাক্তারের বাড়ি নির্যাতন কেন্দ্র</p>