বিনোদপুর স্কুল নির্যাতন কেন্দ্র, মাগুরা/Binodpur High School Torture Center, Magura

বিনোদপুর স্কুল নির্যাতন কেন্দ্র

মহাম্মদপুর উপজেলায় যাওয়ার প্রধান সড়কের ওপরে বিনোদপুর উচ্চবিদ্যালয় অবস্থিত। আকবর বাহিনীর প্রবল প্রতিরোধের কারণে মহাম্মদপুর এবং শ্রীপুর উপজেলায় পাকিস্তানি সেনা ও রাজাকার বাহিনী খুব বেশি নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। এইজন্য বিনোদপুর উচ্চবিদ্যালয় ক্যাম্পটি রাজাকারদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল। মহাম্মদপুর ও শ্রীপুর উপজেলা থেকে পাকিস্তানি সেনা, রেঞ্জার বাহিনী ও রাজাকার আলবদর বাহিনী মুক্তিকামী নিরীহ জনতাকে ধরে নিয়ে এসে উন্মত্ত উল্লাসে ফেটে পড়তো। নির্মম পৈশাচিক নির্যাতন করে হত্যা করতো। মুকুল নামে এক আহত ব্যক্তিকে ধরে এনে বুকের ওপর বুট জুতার পাড়া দিয়ে বার বার বলেছে, পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলো, কিন্তু মুকুল ততবারই বলেছে জয় বাংলা। একপর্যায়ে তাকে বেয়োনেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়। বিনোদপুর বাসী তার ভাষ্কর্য নির্মাণ করে বিনোদপুর চৌরাস্তায় স্থাপন করেছে। 

 

Binodpur High School Torture Center, Magura

Binodpur High School is located on the main road leading to Mohammadpur Upazila. Due to the strong resistance of the Akbar forces, the Pakistani army and Razakar forces could not establish much torture centers in Mohammadpur and Sreepur upazilas. This is why Binodpur High School Camp was important to the razakars. The Pakistani army, ranger forces and al-Badr forces use to take innocent people from Mohammadpur and Sreepur upazilas and burst into laugh. Brutal devil used to torture and kill. The victims were killed brutally. They had killed an injured named Mukul inhumanly. The people of Binodpur placed a statue of him at the Binodpur intersection.

নিকটবর্তী আরও স্থান
  • post-image
    বিনোদপুর স্কুল গণহত্যা, মাগুরা/Binodpur School Genocide, Magura
    <p>বিনোদপুর স্কুল গণহত্যা:&nbsp;</p> <p>মহাম্মদপুর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নে &lsquo;বিনোদপুর চৌরাস্তা বাজারে&rsquo; অবস্থিত &lsquo;বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে&rsquo; পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও রাজাকার আলবদর বাহিনী ক্যাম্প ও নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করে। মহাম্মদপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নিরীহ জনগণকে ধরে এনে এখানে নির্যাতন করা হতো। বিদ্যালয় এবং এর আশেপাশে অন্তত ৫টি গণহত্যা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বিদ্যালয়ের অপরদিকে মধুমতি নদীর পাড়ে কয়েকজনকে একসাথে সার বেঁধে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করে। তাদের মধ্যে দুজনের নাম জানা যায়। তারা হলেন: নিমাই এবং নির্মল।&nbsp;</p> <p>&nbsp;*******</p> <p>&nbsp;</p> <p><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 14pt; text-align: justify;">Binodpur School Genocide:</span></p> <p><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">The Pakistani army and Razakar Al-Badr forces established camps and torture centers at Binodpur High School located at Binodpur Bazar in Mohammadpur Upazila. Innocent people from different places of Mohammadpur were captured and tortured here. At least 5 genocides were perpetrated in and around the school. On the other side of the school, some people were tied up and shot at the bank of Madhumati River. Among them 2 of the names are known, they are: Nimai and Nirmal</span></p>
  • post-image
    বিনোদপুর স্কুল নির্যাতন কেন্দ্র, মাগুরা/Binodpur High School Torture Center, Magura
    <p>বিনোদপুর স্কুল নির্যাতন কেন্দ্র</p> <p>মহাম্মদপুর উপজেলায় যাওয়ার প্রধান সড়কের ওপরে বিনোদপুর উচ্চবিদ্যালয় অবস্থিত। আকবর বাহিনীর প্রবল প্রতিরোধের কারণে মহাম্মদপুর এবং শ্রীপুর উপজেলায় পাকিস্তানি সেনা ও রাজাকার বাহিনী খুব বেশি নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। এইজন্য বিনোদপুর উচ্চবিদ্যালয় ক্যাম্পটি রাজাকারদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল। মহাম্মদপুর ও শ্রীপুর উপজেলা থেকে পাকিস্তানি সেনা, রেঞ্জার বাহিনী ও রাজাকার আলবদর বাহিনী মুক্তিকামী নিরীহ জনতাকে ধরে নিয়ে এসে উন্মত্ত উল্লাসে ফেটে পড়তো। নির্মম পৈশাচিক নির্যাতন করে হত্যা করতো। মুকুল নামে এক আহত ব্যক্তিকে ধরে এনে বুকের ওপর বুট জুতার পাড়া দিয়ে বার বার বলেছে, পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলো, কিন্তু মুকুল ততবারই বলেছে জয় বাংলা। একপর্যায়ে তাকে বেয়োনেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়। বিনোদপুর বাসী তার ভাষ্কর্য নির্মাণ করে বিনোদপুর চৌরাস্তায় স্থাপন করেছে।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">Binodpur High School Torture Center, Magura</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">Binodpur High School is located on the main road leading to Mohammadpur Upazila. Due to the strong resistance of the Akbar forces, the Pakistani army and Razakar forces could not establish much torture centers in Mohammadpur and Sreepur upazilas. This is why Binodpur High School Camp was important to the razakars. The Pakistani army, ranger forces and al-Badr forces use to take innocent people from Mohammadpur and Sreepur upazilas and burst into laugh. Brutal devil used to torture and kill. The victims were killed brutally. They had killed an injured named Mukul inhumanly. The people of Binodpur placed a statue of him at the Binodpur intersection.</span></p>
  • post-image
    বিনোদপুর বধ্যভূমি, মাগুরা/Binodpur School Torture Centre, Magura
    <p>বিনোদপুর বধ্যভূমি:&nbsp;</p> <p>মহাম্মদপুর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নে &lsquo;বিনোদপুর চৌরাস্তা বাজারে&rsquo; অবস্থিত &lsquo;বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে&rsquo; পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও রাজাকার আলবদর বাহিনী ক্যাম্প ও নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করে। মহাম্মদপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নিরীহ জনগণকে ধরে এনে এখানে নির্যাতন করা হতো। বিদ্যালয় এবং এর আশেপাশে অন্তত ৫টি গণহত্যা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বিদ্যালয়ের অপরদিকে মধুমতি নদীর পাড়ে কয়েকজনকে একসাথে সার বেঁধে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করে। তাদের মধ্যে দুজনের নাম জানা যায়। তারা হলেন: নিমাই এবং নির্মল।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 14pt; text-align: justify;">Binodpur School Torture Centre, Magura</span></p> <p><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">The Pakistani army and Razakar Al-Badr forces established camps and torture centers at Binodpur High School located at Binodpur Bazar in Mohammadpur Upazila. Innocent people from different places of Mohammadpur were captured and tortured here. At least 5 genocides were perpetrated in and around the school. On the other side of the school, some people were tied up and shot at the bank of Madhumati River. Among them 2 of the names are known, they are: Nimai and Nirmal</span></p>
  • post-image
    শত্রুজিৎপুর বধ্যভূমি, মাগুরা/Shatrujatpur High School Torture Center, Magura
    <p>শত্রুজাতপুর উচ্চ বিদ্যালয় গণহত্যা:&nbsp;</p> <p>শত্রুজাতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে রাজাকাররা নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেছিল। এই নির্যাতন কেন্দ্রে অনেক নিরীহ মানুষকে ধরে নিয়ে এসে অন্তত ১০ দিন নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। কয়েকটি উদাহরণ দেয়া হলো: এক রাত্রে ১১ জনকে এক সাথে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়। অপর একদিন শচীন নামে একজন জেলে সহ ৮ জনকে ধরে আনে। তাদেরকে সারি বেধে দাঁড় করিয়ে গুলি করে। শচীনের বুকের বাঁ পাশে গুলি লাগে, গুলি করার পর কাত হয়ে পড়ে যান এবং আহত অবস্থায় সাঁতরে নদী পার হওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন। রাজাকাররা তাঁকে দেখে ফেলে আবারও ১০/১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। তিনি ডুব দেন কিছুক্ষণ পর ভেসে ওঠেন, আবার ডুব দেন। এভাবে কচুরিপানার নিচে যেয়ে বেঁচে যান। তার সাথের অপর ৭জন মৃত্যুবরণ করেন।</p> <p>&nbsp;<strong><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 14pt; text-align: justify; font-style: italic;">Shatrujatpur High School Torture Center, Magura</span></strong></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">The Razakars set up torture centers at Shatrujatpur High School. Many innocent people were taken to this torture center then tortured and killed for at least 10 days. One night they killed 11 people at once and dumped them in the river. The other day, they captured 8 people and a fisherman names Shachin. Shachin survived fortunately but the other 7 died.</span></p> <div id="gtx-trans" style="position: absolute; left: -1px; top: 56px;">&nbsp;</div>
  • post-image
    শত্রুজিৎপুর গণহত্যা, মাগুরা/Shatrujatpur High School Genocide, Magura
    <p><strong>শত্রুজাতপুর উচ্চ বিদ্যালয় গণহত্যা:&nbsp;</strong></p> <p>শত্রুজাতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে রাজাকাররা নির্যাতন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেছিল। এই নির্যাতন কেন্দ্রে অনেক নিরীহ মানুষকে ধরে নিয়ে এসে অন্তত ১০ দিন নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। কয়েকটি উদাহরণ দেয়া হলো: এক রাত্রে ১১ জনকে এক সাথে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়। অপর একদিন শচীন নামে একজন জেলে সহ ৮ জনকে ধরে আনে। তাদেরকে সারি বেধে দাঁড় করিয়ে গুলি করে। শচীনের বুকের বাঁ পাশে গুলি লাগে, গুলি করার পর কাত হয়ে পড়ে যান এবং আহত অবস্থায় সাঁতরে নদী পার হওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন। রাজাকাররা তাঁকে দেখে ফেলে আবারও ১০/১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। তিনি ডুব দেন কিছুক্ষণ পর ভেসে ওঠেন, আবার ডুব দেন। এভাবে কচুরিপানার নিচে যেয়ে বেঁচে যান। তার সাথের অপর ৭জন মৃত্যুবরণ করেন।</p> <p style="text-align: center;">&nbsp;*******</p> <p>&nbsp;</p> <p><strong><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 14pt; text-align: justify; font-style: italic;">Shatrujatpur High School Genocide:</span></strong></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">The Razakars set up torture centers at Shatrujatpur High School. Many innocent people were taken to this torture center then tortured and killed for at least 10 days. One night they killed 11 people at once and dumped them in the river. The other day, they captured 8 people and a fisherman names Shachin. Shachin survived fortunately but the other 7 died. </span></p>
  • post-image
    রাজাপুর গণহত্যা, মাগুরা/Rajapur Genocide:
    <p style="text-align: justify;">রাজাপুর গণহত্যা:&nbsp;</p> <p style="text-align: justify;">সেপ্টেম্বরের ৬ তারিখে বিনোদপুর ক্যাম্প থেকে নহাটা বাজারে যাওয়ার পথে রাজাপুর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে অবস্থিত আদিবাসী পাড়ায় হিমানী নামের ১৪ বছরের এক কিশোরীকে নিজের ঘরের পিছনে খোলা জায়গায় ৩ পাকিস্তানি সেনা ও রাজাকার মিলে ধর্ষণ করে। কিছু দূরে যেয়ে অপর একটি বাড়িতে পাকিস্তানি সেনা ও&nbsp; রাজাকাররা অন্য এক নারীকে ধর্ষণ করে। প্রত্যক্ষদর্শী জানান, রাজাকাররা তার বড় ভাইয়ের ৬ মাস বয়সের শিশুটিকে মাটিতে আছড়ে হত্যা করে।&nbsp;</p> <p style="text-align: justify;">সেপ্টেম্বরের ১০ তারিখে গ্রামের আরেক নারীরে রাজাকাররা ধরে নিয়ে ৩/৪ দিন ক্যাম্পে রেখে নির্যাতন করে। মতান্তরে, ঘরের পেছনে নিয়ে তাকে রাজাকাররা ধর্ষণ করে।&nbsp;</p> <p style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">Rajapur Genocide:</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">On September 6, a 14-year-old girl named Himani was raped by 3 Pakistani army and a Razakar in Rajapur village. They also raped another woman in another house. An eyewitness said the Razakars killed his 6-month-old niece by throwing her in the ground.</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">On September 10, the Razakars raped another woman in the village and tortured her in a camp for 3-4 days. </span></p>
  • post-image
    ঢাকা-মাগুরা রোড স্লুইস গেইট গণহত্যা, মাগুরা/Dhaka-Magura Road Sluice Gate Genocide
    <p>ঢাকা-মাগুরা রোড স্লুইস গেইট গণহত্যা&nbsp;&nbsp;</p> <p>ঢাকা-মাগুরা মহাসড়কের নবগঙ্গা নদীর উপরে নির্মিত স্লুইস&nbsp;গেটটি ছিল মানুষ হত্যার নৃশংস হিংশ্রতার নিদর্শন।&nbsp; মুক্তিযুদ্ধের সময় এই স্থানে গাড়ি পারাপারের জন্য ফেরি ছিল। রাজাকার ও আলবদর বাহিনী এবং পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সদস্যরা মাগুরা জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে নিরীহ ও মুক্তিকামী মানুষকে ধরে এনে এখানে হত্যা করে নদীতে ভাসিয়ে দিত। প্রত্যক্ষদর্শীর ভাষ্য মতে, এভাবে পুরো একাত্তর জুড়েই এই স্লুইস&nbsp;গেইটে অগণিত মানুষকে হত্যা করে নদীতে ভাসিয়ে দিত তারা। স্বাধীনতার পর এখানে প্রচুর নরকঙ্কাল, হাড়, মাথার খুলি ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় পাওয়া যায়।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 14pt; text-align: justify; text-indent: -0.25in;">Dhaka-Magura Road Sluice Gate Genocide</span></p> <p><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">The sluice gate built on the Nabaganga River on the Dhaka-Magura highway was a sign of brutal</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: BN;">ity</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">. Razakars, Al-Badr forces and the Pakistani army captured and killed people from various places in Magura district and dumped them in the river. According to the eyewitnesses, throughout the 1971, they had killed numerous people in this sluice gate. After independence, lot of skeletons and bones were found scattered in this place.</span></p>
  • post-image
    মাগুরা শহরে ঢাকা রোড স্লুইস গেট বধ্যভূমি/Dhaka Road Sluice Gate Mass Killing Site, Magura
    <p>মাগুরা শহরে ঢাকা রোড স্লুইস গেট বধ্যভূমি:&nbsp;</p> <p>১৯৭১ সালে পাকিস্তানি বাহিনী ও রাজাকার আলবদর বাহিনী বিভিন্ন স্থান থেকে অন্তত: ৫০ দিন ব্যাপী মুক্তিকামী নিরীহ বাঙালিকে ধরে এনে নির্যাতন হত্যা করে। জগবন্ধু দত্তের বাড়িতে স্থাপিত নির্যাতন কেন্দ্রে নির্মম নির্যাতন শেষে মাগুরা শহরে ঢাকা রোডে নবগঙ্গা নদীতে নির্মিত স্লুইস গেটের ওপরে এনে হত্যা করে নদীতে ভাসিয়ে দিতো। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, ইসলামী ছাত্র সংঘের স্থানীয় প্রতিনিধি রিজু ও কবির মানুষ হত্যার কাজগুলি করতো। তাদের মানুষ হত্যার পদ্ধতি ছিল নৃশংস নির্মম। মানুষগুলোকে ধরে নিয়ে এসে প্রথমে পিটাতো। পেটানো শেষে আহতদের হাত পা কেটে ভোঁতা ছুরি দিয়ে পুঁচিয়ে পুঁচিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করতো। কখনও কখনও ভীত সন্ত্রস্ত্র মানুষগুলোকে স্লুইস গেটের কিনারায় দড়ি বেঁধে ঝুলিয়ে গুলি করে হত্যা করতো।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">Dhaka Road Sluice Gate Mass Killing Site, Magura</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">In 1971, the Pakistani army and Razakar al-Badr forces captured innocent Bangalis from various places and tortured them for at least 50 days. After being brutally tortured at the torture center of Jagbandhu Dutta's house, they were brought to Magura town on Dhaka Road to be killed and floated in the river. According to he eyewitnesses, Rizu and Kabir, the local representatives of the Islamic Chhatra Sangha were involved with these killing. Their manner of killing people was so brutal and horrific. </span></p> <div id="gtx-trans" style="position: absolute; left: -14px; top: 78px;">&nbsp;</div>
  • post-image
    পিটিআই ক্যাম্পাস নির্যাতন কেন্দ্র, মাগুরা/PTI Campus Torture Center, Magura
    <p>পিটিআই ক্যাম্পাস নির্যাতন কেন্দ্র&nbsp;</p> <p>১৯৭১ সালে এপ্রিল মাসের দিকে রাজাকার বাহিনী গঠনের পূর্বে পাকিস্তানি সেনারা বিভিন্ন এলাকা থেকে নিরীহ মানুষ ধরে এনে এখানে নির্যাতন করে হত্যা করতো। হত্যার পূর্বে তাদের ওপর অমানুষিক নির্যাতন চালানো হতো। টেংরা নামে এক ব্যক্তিকে এখানে ধরে এনে নির্যাতন শেষে হত্যা করেছে। বর্তমানে আওয়ামী লীগের মাগুরা জেলার সভাপতি জনাব তাঞ্জেল আহমেদ ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যকে ধরে এনে নির্যাতন করে। অন্য যাদের ধরে এনে এখানে নির্যাতন করা হয়েছে তাদের পরিচয় পাওয়া যায় নি।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">PTI Campus Torture Center, Magura</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">During the month of April in 1971, before the formation of the Razakar force, the Pakistani army abducted innocent people from different areas and tortured then killed them here. A man named Tengra was killed here after being tortured. Present Awami League's president of Magura district Mr. Tanjel Ahmed and his other family members captured and tortured here. The identities of the other victims have not been known.</span></p> <div id="gtx-trans" style="position: absolute; left: -12px; top: 64px;">&nbsp;</div>
  • post-image
    পিটিআই ক্যাম্পাস গণকবর, মাগুরা/ PTI Premises Mass Grave, Magura
    <p>পিটিআই ক্যাম্পাস গণকবর</p> <p>মাগুরা শহরে পিটিআই চত্ত্বরে পাকিস্তানি বাহিনী এক সাথে ২৫টি কবর খুঁড়ে মৃতদেহ পুঁতে রাখে। এখানে&nbsp; প্রতিটি কবরে ২জনকে হত্যা করে পুঁতে রাখে।&nbsp;</p> <p>&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">PTI Premises Mass Grave&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif';">The Pakistani army dug 25 graves at PTI premises in Magura city and buried the dead here. In each grave, 2 people are grounded.</span></p>