গোয়ালপাড়া গণকবর, খালিশপুর থানা/ Goalpara mass grave, Khalishpur Thana

খালিশপুরে ভৈরব নদীর তীরে গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজ ছিলো বিহারিদের বাস। ১৯৭১ সালের ১৫ ডিসেম্বর অর্থাৎ বিজয়ের পূর্বদিন বিহারিরা নিরীহ ৬ [ছয়]  জন বাঙালিকে হত্যা করে।  তারা হলেন-১] গোয়ালপাড়া বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তৎকালীন নির্বাহী প্রকৌশলী আঃ মান্নান ২] শিফট ইনচার্জ লুৎফল আলী চৌধুরী ৩] স্টাফ আঃ আলী হাদী ৪] আঃ গনি ৫] আঃ  হাসান ও ৬] মোঃ আঃ মোকছেদ আলী আকন্দ। বর্তমানে ৬ জনের গণকবর টি বাঁধানো আছে।

 

 

***

Biharis used to live in the Goalpara power hosue. On 15 December 1971, just before the conquest, Biharis killed six innocent Bengalis. They are – Abdul Mannan, Lutfal Alil Chowdhury, Abdul Ali Hadi, Abdul Gani, Abdul Hasan and Md. Abdul Moksed Ali Akand. There has a mass grave of the 6 martyrs.

নিকটবর্তী আরও স্থান
  • post-image
    গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজ নিযার্তন কেন্দ্র/ Goalpara Power House Torture center
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; color: black; background: white; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">খালিশপুরে গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজের অভ্যন্তরে এবং এর আশেপাশে অসংখ্য মানুষকে হত্যা।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>করে গোটা এলাকাটি ছিলো বিহারিদের দখলে। একাত্তরের ১৫ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর মর্টারশেলের আঘাতে ছয়জন শহিদ হন। এদের গণকবরটি এখানে বাঁধানো আছে।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; color: black; background: white; mso-bidi-language: BN;">***</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; color: black; background: white;">Many people were killed in and around the Goalpara Power House in Khalishpur during 1971. The entire area was occupied by Biharis. On 15 December 1971, six people bec</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; color: black; background: white; mso-bidi-language: BN;">a</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; color: black; background: white;">me martyr due to a deadliest attack of the Pakistani army. There is a mass grave of them here.</span></p>
  • post-image
    গোয়ালপাড়া গণকবর, খালিশপুর থানা/ Goalpara mass grave, Khalishpur Thana
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">খালিশপুরে ভৈরব নদীর তীরে গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজ ছিলো বিহারিদের বাস। ১৯৭১ সালের ১৫ ডিসেম্বর অর্থাৎ বিজয়ের পূর্বদিন বিহারিরা নিরীহ ৬ [ছয়]<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>জন বাঙালিকে হত্যা করে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>তারা হলেন-১] গোয়ালপাড়া বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তৎকালীন নির্বাহী প্রকৌশলী আঃ মান্নান ২] শিফট ইনচার্জ লুৎফল আলী চৌধুরী ৩] স্টাফ আঃ আলী হাদী ৪] আঃ গনি ৫] আঃ<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>হাসান ও ৬] মোঃ আঃ মোকছেদ আলী আকন্দ। বর্তমানে ৬ জনের গণকবর টি বাঁধানো আছে।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; color: black; background: white; mso-bidi-language: BN;">Biharis used to live in the Goalpara power hosue. On 15 December 1971, just before the conquest, Biharis killed six innocent Bengalis. They are &ndash; Abdul Mannan, Lutfal Alil Chowdhury, Abdul Ali Hadi, Abdul Gani, Abdul Hasan and Md. Abdul Moksed Ali Akand. There has a mass grave of the 6 martyrs. </span></p>
  • post-image
    গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজ গণহত্যা / Goalpara Power House genocide
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">খালিশপুরে গোয়ালপাড়া পাওয়ার হাউজের অভ্যন্তরে এবং এর আশেপাশে অসংখ্য মানুষকে হত্যা করা হয়। গোটা এলাকাটি ছিলো বিহারিদের দখলে। একাত্তরের ১৫ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর মর্টারশেলের আঘাতে ছয়জন শহিদ হন। এঁদের গণকবরটি এখানে বাঁধানো আছে।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; color: black; background: white; mso-bidi-language: BN;">Many people were killed in and around the Goalpara Power House in Khalishpur during 1971. The entire area was occupied by Biharis. On 15 December 1971, six people become martyr due to a deadliest attack of the Pakistani army. There is a mass grave of them here.&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p>
  • post-image
    পিপলস জুট মিল গণহত্যা, খলিশপুর/ Peoples Jute Mills genocide, Khalishpur
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">খুলনার ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত পিপলস জুট মিল মুক্তিযুদ্ধকালীন গণহত্যা নিযার্তনের আরেক নিদশর্ন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পুরোটা সময়ে এখানে গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে। পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং বিহারীরা মিলটিকে গণহত্যা</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">নিযার্তন ও বধ্যভূমিতে পরিণত করেছিলো। মুক্তিযুদ্ধের পুরোটা সময়ে এখানে অসংখ্য নিরীহ বাঙালিদের ধরে এনে নিযার্তন ও হত্যা করা হতো। ১৯৭২ সালে খালিশপুর এলাকায় অননুমোদিত অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশ পিপলস জুট মিলের মধ্যে থেকে অসংখ্য নরকঙ্কাল উদ্ধার করে। মিলের শ্রমিক কলোনির ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংকের মধ্যে দুহাজারেরও বেশি কঙ্কালের সন্ধান পাওয়া যায়।<br /><br /></span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;">Peoples Jute Mills is situated on the bank of Bhairab River of Khulna. During the time of liberation war, Pakistani military, with the help of Bihari and Razakars, transformed this mill into a genocide-torture center. Thousands of Bengali people were killed in the mill. More than two thousand skeletons were found in a safety tank of this mill. <span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;</span></span></p>
  • post-image
    পিপলস জুট মিল নিযার্তন কেন্দ্র, খলিশপুর/ People’s Jute Mill Torture Center, Khalishpur
    <p class="MsoNormal" style="margin-bottom: .0001pt; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">খুলনার ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত পিপলস জুট মিল মুক্তিযুদ্ধকালীন গণহত্যা নিযার্তনের আরেক নিদশর্ন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পুরোটা সময়ে এখানে গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে। পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং বিহারীরা মিলটিকে গণহত্যা</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">নিযার্তন ও বধ্যভূমিতে পরিণত করেছিলো। মুক্তিযুদ্ধের পুরোটা সময়ে এখানে অসংখ্য নিরীহ বাঙালিদের ধরে এনে নিযার্তন ও হত্যা করা হতো। এ হিসেবে এখানে বহুবার গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে। ১৯৭২ সালে খালিশপুর এলাকায় অননুমোদিত অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশ পিপলস জুট মিলের মধ্যে থেকে অসংখ্য নরকঙ্কাল উদ্ধার করে। মিলের শ্রমিক কলোনির ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংকের মধ্যে দুহাজারেরও বেশি কঙ্কালের সন্ধান পাওয়া যায়।</span></p> <p class="MsoNormal" style="margin-bottom: .0001pt; line-height: normal;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="margin-bottom: .0001pt; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman';">***</span></p> <p class="MsoNormal" style="margin-bottom: .0001pt; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black;">People&rsquo;s Jute Mill situated by river Bhairab is the evidence of genocide and torture of 1971. In this place numerous Bengalis got tortured and killed by Pakistani military and Biharis. In 1972 police discovered numerous human skeletons from this place. They also found more than 2 thousand skelton from the safety tank of colony&rsquo;s toilet.</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: 'Cambria',serif; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-font-family: Cambria; color: black;">&nbsp;</span></p>
  • post-image
    খালিশপুর শ্রমিক ময়দান বধ্যভূমি, খালিশপুর থানা/ Khalishpur labor Maidan Mass killing Site, Khalishpur Thana
    <p class="MsoNormal" style="mso-margin-top-alt: auto; mso-margin-bottom-alt: auto; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">চিত্রালী বাজার ও চিত্রালী সিনেমা হলের পাশে ছিলো খালিশপুর শ্রমিক ময়দান। ১৯৭১ সালে এই ময়দানের পাশে কচুরিপানায় ভরা একটি পুকুর ছিলো। ২৮ মার্চ থেকে খুলনায় বিহারীদের হত্যাযজ্ঞ শুরু হয় এবং তা ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে। এ সময়ে বিভিন্ন এলাকা থেকে বাঙালিদের ধরে এনে হত্যা করত বিহারীরা।</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: 'Cambria',serif; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-font-family: Cambria; color: black; mso-bidi-language: BN;">&nbsp;&nbsp;</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">প্রত্যক্ষদর্শীর মতে একাত্তরের নয় মাসে এখানে তিন শতাধিক মানুষকে হত্যা করা হয়। এ জায়গাটি এখনও অনালোচিত ও অচিহ্নিত</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: HI;" lang="HI">।</span></p> <p class="MsoNormal" style="mso-margin-top-alt: auto; mso-margin-bottom-alt: auto; line-height: normal;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="mso-margin-top-alt: auto; mso-margin-bottom-alt: auto; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: black; mso-bidi-language: HI;" lang="HI">***</span></p> <p class="MsoNormal" style="mso-margin-top-alt: auto; mso-margin-bottom-alt: auto; line-height: normal;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; color: #212529; background: white;">Currently Khalishpur Labor Maidan (field/yard) is situated beside Chitrali Bazaar and Chitrali Cinema Hall. There was an abandoned pond beside this Maidan (field/yard) in 1971. The Bihari of Khalishpur started killing Bengali people on 28 March 1971, and they continued this barbaric activity until the victory was achieved. After the independence, numerous skulls and skeleton were found.</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: 'Cambria',serif; mso-bidi-font-family: Cambria; color: #212529; background: white;">&nbsp;</span><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; color: #212529; background: white;">At least 300 people were killed in this place. </span></p> <p class="MsoNormal" style="margin-bottom: 10.0pt; mso-line-height-alt: 12.65pt; background: white;"><span style="font-size: 14.0pt; font-family: Kalpurush; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; color: #222222; mso-bidi-language: BN;">&nbsp;</span></p>
  • post-image
    খালিশপুর শ্রমিক ময়দান গণহত্যা/ Khalishpur labor Maidan genocide
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">বর্তমানে চিত্রালী বাজার ও চিত্রালী সিনেমা হলের পাশে অবস্থিত খালিশপুর শ্রমিক ময়দান। ১৯৭১ সালে এই ময়দানের পাশে ছিলো একটি পরিত্যক্ত ডোবা পুকুর। যার অনেকটাই ছিল কচুরি পানায় ভরা।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN"> ২৮ মার্চ সমগ্র খালিশপুরের বিহারিদের হত্যাযজ্ঞ শুরু হয় এবং বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত তা চলে। এসময় মধ্যে বিভিন্ন এলাকা থেকে বাঙালিদের ধরে এনে হত্যা করা হয়। খালিশপুর হানাদার মুক্ত হওয়ার পর এখানে অসংখ্য নরকঙ্কাল ও মাথার খুলি পাওয়া যায়।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: 'Calibri',sans-serif; mso-ascii-theme-font: minor-latin; mso-fareast-font-family: Calibri; mso-fareast-theme-font: minor-latin; mso-hansi-theme-font: minor-latin; mso-bidi-font-family: Vrinda; mso-bidi-theme-font: minor-bidi; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">Currently Khalishpur Labor Maidan (field/yard) is situated beside Chitrali Bazaar and Chitrali Cinema Hall. There was a abandoned pond beside this Maidan (field/yard) in 1971. The Bihari of Khalishpur started killing Bengali people on 28 March 1971, and they continued this barbaric activity until the victory was achieved. After the independence, numerous skulls and skeleton were found.&nbsp;</span></span></p>
  • post-image
    ক্রিসেন্ট জুট মিল বধ্যভূমি, খালিশপুর থানা/ Crescent Jute Mill Mass Killing Site, Khalishpur Thana
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত ক্রিসেন্ট জুট মিল। মুক্তিযুদ্ধকালে মিলটি ছিল গণহত্যা এবং বধ্যভূমির এক নিদর্শন। মিলের মধ্যে কাটাই ঘর নামে পাট কাটা একটি বিশাল টিন শেটের পাঁকা ঘর অবস্থিত। এখানে শ্রমিক ও শহর থেকে অনেক লোককে ধরে এনে জবাই করতো। প্রত্যক্ষদর্শী মিলের শ্রমিকদের ভাষ্যমতে এখানে যুদ্ধকালীন বিভিন্ন সময়ে সহস্রাধিক নিরীহ লোককে ধরে এনে হত্যা করা হয়। এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে এখানে রিকশাওয়ালা জাবেদ আলীসহ বেশ কয়েকজন মিলটির ভেতরে যায়</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জাবেদ আলী বাদে বাকী রিকশাওয়ালাদের নির্মম পরিণতি ভোগ করতে হয়। ক্রিসেন্ট জুট মিলের অত্যাচার ও নির্মম হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়েছেন পাকিস্তানি সেনাদের হাতে আটকে থাকা ও নির্যাতনের শিকার ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী। শাহরিয়ার কবিরকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">, &ldquo;</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">গভীর রাতে একাধিক ট্রাক ভর্তি মানুষ এনে মিলের পাটের গুদামের পাশে নামাত।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>তাদের হাত-পা চোখ বাঁধা থাকতো।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>ওই অবস্থায় পাট কাটা মেশিনের মধ্যে দিয়ে তাদের শরীর থেকে মাথা আলাদা করে ফেলত। তিনি বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ক্রিসেন্ট জুট মিলের কাস্টম অফিসারের কোয়ার্টারটিও নির্যাতনের সেলে পরিণত হয়েছিলো। এ কোয়ার্টারের পাশে মানুষ হত্যা করে রক্ত ড্রেনের মাধ্যমে পাশের ভৈরব নদীতে বইয়ে দিতো এবং লাশগুলো ভৈরব নদীতে ছুঁড়ে ফেলে দিতো।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">Crescent Jute mill is located on the banks of Bhairab River. This mill is a perfect sign and example of genocide in </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">1971. </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">It became a death camp and torture cell of Pakistani Army during liberation war. According to various eyewitnesses, during the whole-time of </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">1971 </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 107%; font-family: Kalpurush;">thousands of innocent people was abducted and killed ruthlessly inside the mill. Ferdousi Priyabhashini, who was a Bangladeshi sculptor and who was the first one to publicly announce herself as Birangona, was also an eyewitness of the genocide in Crescent Jute mill. She stated that, after killing Bengali people their blood was drained into the nearby river and body was thrown out in the river.</span></p>
  • post-image
    ক্রিসেন্ট জুট মিল নিযার্তন কেন্দ্র, খালিশপুর থানা/ Crescent Jute Mill Torture center, Khalishpur Thana
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত ক্রিসেন্ট জুট মিল। মুক্তিযুদ্ধকালে মিলটি<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>গণহত্যা এবং বধ্যভূমির এক নিদর্শন। মিলের মধ্যে কাটাই ঘর নামে পাট কাটা একটি বিশাল টিন শেটের পাঁকা ঘর অবস্থিত। এখানে শ্রমিক ও শহর থেকে অনেক লোককে ধরে এনে জবাই করতো। প্রত্যক্ষদর্শী মিলের শ্রমিকদের ভাষ্যমতে এখানে যুদ্ধকালীন বিভিন্ন সময়ে সহস্রাধিক</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">&nbsp;নিরীহ লোককে ধরে এনে হত্যা করা হয়। এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে এখানে রিক্সাওয়ালা জাবেদ আলীসহ বেশ কয়েকজন মিলটির ভেতরে যায়</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জাবেদ আলী বাদে বাকী রিক্সাওয়ালাদের নির্মম পরিণতি ভোগ করতে হয়। </span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';"><span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;</span></span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ক্রিসেন্ট জুট মিলের অত্যাচার ও নির্মম হত্যাকান্ডের বর্ণনা দিয়েছেন পাকিস্তানি সেনাদের হাতে আটকে থাকা ও নির্যাতনের শিকার ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী। শাহরিয়ার কবিরকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, &ldquo;</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">গভীর রাতে একাধিক ট্রাক ভর্তি মানুষ এনে মিলের পাটের গুদামের পাশে নামাতো।<span>&nbsp; </span>তাদের হাত-পা চোখ বাঁধা থাকতো।<span>&nbsp; </span>ওই অবস্থায় পাট কাটা মেশিনের মধ্যে দিয়ে তাদের শরীর থেকে মাথা আলাদা করে ফেলতো।<span>&nbsp; </span>তিনি বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ক্রিসেন্ট জুট মিলের কাস্টম অফিসারের কোয়ার্টারটিও নির্যাতনের সেলে পরিণত হয়েছিলো। এ কোয়ার্টারের পাশে মানুষ হত্যা করে রক্ত ড্রেনের মাধ্যমে পাশের ভৈরব নদীতে বইয়ে দিতো এবং লাশগুলো ভৈরব নদীতে ছুঁড়ে ফেলে দিতো।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN"><span style="color: #212529; font-size: 18.6667px;">Crescent Jute mill is located on the banks of Bhairab River. This mill is a perfect sign and example of genocide in 1971. It became a death camp and torture cell of Pakistani Army during liberation war. According to various eyewitnesses, during the whole time of 1971 thousands of innocent people was abducted and killed ruthlessly inside the mill. Ferdousi Priyabhashini, who was a Bangladeshi sculptor and who was the first one to publicly announce herself as Birangona, was also an eyewitness of the genocide in Crescent Jute mill. She stated that, after killing Bengali people their blood was drained into the nearby river and body was thrown out in the river.</span></span></p>
  • post-image
    ক্রিসেন্ট জুট মিল গণহত্যা, খালিশপুর থানা / Crescent Jute Mill genocide, Khalishpur
    <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত ক্রিসেন্ট জুট মিল। মুক্তিযুদ্ধকালে মিলটি<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp;</span>গণহত্যা ও বধ্যভূমির এক নিদর্শন। মিলের মধ্যে কাটাই ঘর নামে পাট কাটার একটি বিশাল টিন শেটের পাঁকা ঘর অবস্থিত। এখানে শ্রমিক ও শহর থেকে অনেক লোককে ধরে এনে জবাই করা হতো। প্রত্যক্ষদর্শী মিলের শ্রমিকদের ভাষ্যমতে এখানে যুদ্ধকালীন বিভিন্ন সময়ে সহস্রাধিক</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">&nbsp;নিরীহ লোককে ধরে এনে হত্যা করা হয়। এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে এখানে রিক্সাওয়ালা জাবেদ আলীসহ বেশ কয়েকজনকে মিলটির ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">জাবেদ আলী বাদে বাকী রিক্সাওয়ালাদের নির্মম পরিণতি ভোগ করতে হয়।&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ক্রিসেন্ট জুট মিলের অত্যাচার ও নির্মম হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়েছেন পাকিস্তানি সেনাদের হাতে আটকে থাকা ও নির্যাতনের শিকার ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী। শাহরিয়ার কবিরকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, &ldquo;</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">গভীর রাতে একাধিক ট্রাক ভর্তি মানুষ এনে মিলের পাটের গুদামের পাশে নামাতো।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>তাদের হাত-পা চোখ বাঁধা থাকতো।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>ওই অবস্থায় পাট কাটা মেশিনের মধ্যে দিয়ে তাদের শরীর থেকে মাথা আলাদা করে ফেলতো।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>তিনি বলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali';">, </span><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">ক্রিসেন্ট জুট মিলের কাস্টম অফিসারের কোয়ার্টারটিও নির্যাতনের সেলে পরিণত হয়েছিলো। এ কোয়ার্টারের পাশে মানুষ হত্যা করে রক্ত ড্রেনের মাধ্যমে পাশের ভৈরব নদীতে বইয়ে দিতো এবং লাশগুলো ভৈরব নদীতে ছুঁড়ে ফেলে দিতো।</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Siyam Rupali'; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***</span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal"><span style="font-size: 14pt; line-height: 107%; font-family: 'Siyam Rupali'; background-image: initial; background-position: initial; background-size: initial; background-repeat: initial; background-attachment: initial; background-origin: initial; background-clip: initial;">Crescent Jute mill is located on the banks of Bhairab River. This mill is a perfect sign and example of genocide in 1971. It became a death camp and torture cell of Pakistani Army during liberation war. According to various eyewitnesses, during the whole time of 1971 thousands of innocent people was abducted and killed ruthlessly inside the mill. Ferdousi Priyabhashini, who was a Bangladeshi sculptor and who was the first one to publicly announce herself as Birangona, was also an eyewitness of the genocide in Crescent Jute mill. She stated that, after killing Bengali people their blood was drained into the nearby river and body was thrown out in the river. </span></p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal">&nbsp;</p>