খলিশাখালি গণহত্যা, বাগেরহাট

খলিশাখালি গণহত্যা

খলিশাখালী গ্রামের ডাঙায় ধানক্ষেতের মধ্যে বহু লোক আশ্রয় নিয়েছিলেনআশ্রিতদের মধ্যে বেশিরভাগ ছিলেন পিরোজপুর জেলার আটঘর কুড়িয়ানার অধিবাসী। দেশ ত্যাগ করে ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে তারা এক দিনের জন্য বিশ্রাম করছিলেন এখানে। বাবুগঞ্জ বাজারের কাছে গানবোট থমিয়ে পাকিস্তানী বাহিনীর সদস্যরা চিতলমারীর দিকে অগ্রসর হওয়ার পথে খলিশাখালীর ডাঙায় এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে প্রায় ৫০ জন লোককে হত্যা করে। স্থানীয়দের মধ্যে যারা নিহত হয়েছিলেন তাদের মধ্যে নীলকমল মণ্ডলকে রাজাকার বাহিনীর লোকজন শাবল দিয়ে কুপিয়ে মারে, অন্যরা মারা যান পাকিস্তানী বাহিনীর গুলিতে।

Many people took shelter in the paddy fields in Khalishakhali village. Most of the refugees were from Atghar Kuriana in Pirojpur district. They were resting here for a day with the intention of leaving the country for India. Members of the Pakistani forces stopped a gunboat near Babuganj Bazar and randomly opened fire on the shores of Khalishakhali on their way to Chitalmari, killed about 50 people. Among the locals who were killed, Nilkamal Mondol was stabbed to death by the Razakar men, while others were shot dead by the Pakistani forces.

 

নিকটবর্তী আরও স্থান
  • post-image
    খলিশাখালি গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p>খলিশাখালি গণহত্যা</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">খলিশাখালী গ্রামের ডাঙায় ধানক্ষেতের মধ্যে বহু লোক আশ্রয় নিয়েছিলেন</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ; mso-bidi-language: HI;" lang="HI">। </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">আশ্রিতদের মধ্যে বেশিরভাগ ছিলেন পিরোজপুর জেলার আটঘর কুড়িয়ানার অধিবাসী। দেশ ত্যাগ করে ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে তারা এক দিনের জন্য বিশ্রাম করছিলেন এখানে। বাবুগঞ্জ বাজারের কাছে গানবোট থমিয়ে পাকিস্তানী বাহিনীর সদস্যরা চিতলমারীর দিকে অগ্রসর হওয়ার পথে খলিশাখালীর </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ডাঙায় এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে প্রায় ৫০ জন লোককে হত্যা করে। স্থানীয়দের মধ্যে যারা নিহত হয়েছিলেন তাদের মধ্যে নীলকমল মণ্ডলকে রাজাকার বাহিনীর লোকজন শাবল দিয়ে কুপিয়ে মারে</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">অন্যরা মারা যান পাকিস্তানী বাহিনীর গুলিতে।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">Many people took shelter in the paddy fields in Khalishakhali village. Most of the refugees were from Atghar Kuriana in Pirojpur district. They were resting here for a day with the intention of leaving the country for India. Members of the Pakistani forces stopped a gunboat near Babuganj Bazar and randomly opened fire on the shores of Khalishakhali on their way to Chitalmari, killed about 50 people. Among the locals who were killed, Nilkamal Mondol was stabbed to death by the Razakar men, while others were shot dead by the Pakistani forces.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    খলিশাখালি বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p>খলিশাখালি বধ্যভূমি</p> <p><span style="font-size: 13.0pt; line-height: 115%; font-family: SutonnyMJ; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-font-family: SutonnyMJ; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">LwjkvLvjx M&Ouml;v&Dagger;gi WvOvq avb&Dagger;&yuml;&Dagger;Zi g&Dagger;a&uml; e&ucirc; &dagger;jvK Avk&Ouml;q wb&Dagger;qwQ&Dagger;jb| Avwk&Ouml;Z&Dagger;`i g&Dagger;a&uml; &dagger;ewkifvM wQ&Dagger;jb wc&Dagger;ivRcyi &dagger;Rjvi AvUNi Kzwoqvbvi Awaevmx| &dagger;`k Z&uml;vM K&Dagger;i fvi&Dagger;Z hvIqvi D&Dagger;&Iuml;&Dagger;k&uml; Zviv GK w`&Dagger;bi Rb&uml; wek&Ouml;vg KiwQ&Dagger;jb GLv&Dagger;b| eveyM&Auml; evRv&Dagger;ii Kv&Dagger;Q Mvb&Dagger;evU _wg&Dagger;q cvwK&macr;&Iacute;vbx evwnbxi m`m&uml;iv wPZjgvixi w`&Dagger;K AM&Ouml;mi nIqvi c&Dagger;_ LwjkvLvjxi WvOvq G&Dagger;jvcvZvwo &cedil;wjel&copy;Y K&Dagger;i c&Ouml;vq 50 Rb &dagger;jvK&Dagger;K nZ&uml;v K&Dagger;i| &macr;&rsquo;vbxq&Dagger;`i g&Dagger;a&uml; hviv wbnZ n&Dagger;qwQ&Dagger;jb Zv&Dagger;`i g&Dagger;a&uml; bxjKgj g&ETH;j&Dagger;K ivRvKvi evwnbxi &dagger;jvKRb kvej w`&Dagger;q Kzwc&Dagger;q gv&Dagger;i, Ab&uml;iv gviv hvb cvwK&macr;&Iacute;vbx evwnbxi &cedil;wj&Dagger;Z|</span></p> <p><span style="font-size: 13.0pt; line-height: 115%; font-family: SutonnyMJ; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-bidi-font-family: SutonnyMJ; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;"><span style="font-family: 'Times New Roman', serif; font-size: 12pt;">Many people took shelter in the paddy fields in Khalishakhali village. Most of the refugees were from Atghar Kuriana in Pirojpur district. They were resting here for a day with the intention of leaving the country for India. Members of the Pakistani forces stopped a gunboat near Babuganj Bazar and randomly opened fire on the shores of Khalishakhali on their way to Chitalmari, killed about 50 people. Among the locals who were killed, Nilkamal Mondol was stabbed to death by the Razakar men, while others were shot dead by the Pakistani forces.</span>&nbsp;</span></p>
  • post-image
    খলিশাখালি গণকবর, বাগেরহাট
    <p>খলিশাখালি গণকবর</p>
  • post-image
    পিপড়াডাংগা বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p>পিপড়াডাংগা বধ্যভূমি</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">২০ জুন ১৯৭১ পাকিস্তানি বাহিনী চিতলমারী আক্রমণ করেছিল তিনদিক থেকে। একটি গানবোট আসে পিরোজপুর থেকে। এটি চিতলমারীর কালিগঞ্জ বাজারে এসে ভেড়ে। পাকিস্তানি বাহিনীর এই দলটি পিঁপড়াডাঙ্গা গ্রামের মদ্য দিয়ে এগিয়ে যায়। যাওয়ার সময় তারা হত্যাকাণ্ড সংগঠিত করে। একই সময়ে অনেক নারী পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে নির্যাতিতও হয়েছিল।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">On 20 June 1971, the Pakistani forces attacked Chitalmari from three directions. Then a gunboat came from Pirojpur. This group of Pakistani forces advanced through Pimpradanga village. On the way, they perpetrated a huge genocide. At the same time, many women were tortured by the Pakistani forces.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    পিপড়াডাংগা গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p>পিপড়াডাঙ্গা গণহত্যা</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">পাকিস্তানী বাহিনীর একটি দল কালীগঞ্জ বাজারে গানবোট থেকে নেমে পিঁপড়াডাঙ্গার পথ ধরে খাশেরহাট বাজারের দিকে এগিয়ে যায়। যাকে সামনে পায় তাকেই গুলি করতে থাকে। নারী পুরুষ নির্বিশেষে তারা এখানে গণহত্যা চালায়। একে একে সখীচরণ প্রামাণিক</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ইন্দুভূষণ মল্লিক</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">দেবেন্দ্রনাথ মল্লিককে</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">নারায়ণচন্দ্র মন্ডল</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">যোগেন্দ্রনাথ গুহ</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">অমর গুহ</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ছবি রাণী গুহ এবং রাধাকান্ত<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>গাইনকে গুলি করে হত্যা করে তারা। পাকিস্তানী বাহিনী শারিরীকভাবে নির্যাতন করে শরৎ মন্ডলের কন্যা সুনীতি মন্ডল এবং হেমন্ত কুমার মন্ডলের স্ত্রী ল</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">&acute;</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ী রাণী মন্ডলকে।<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>পাকিস্তানী বাহিনী শেল নিক্ষেপ করে নগেন্দ্রনাথ বড়ালের বাড়িসহ অনেকগুলো বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় এবং খাশেরহাট বাজার</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">চরবানিয়ারি স্কুল ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক প্রফুল্ল কুমার রায়ের বাড়িসহ আরো কয়েকটি বাড়ি ধ্বংস করে।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: BN;">A group of the Pakistani troops got down from the gunboat at Kaliganj Bazar and proceeded towards Khasherhat Bazar via Pimpradanga. They killed people randomly. They carry out genocide here irrespective of men and women. One by one, killed Sakhicharan Pramanik, Indubhushan Mallick, Debendranath Mallick, Narayan Chandra Mandal, Jogendranath Guhu, Amar Guhu, Photo Rani Guhu and Radhakanta Gain. They physically tortured Suniti Mandal, daughter of Sarat Mandal and Lady Rani Mandal, wife of Hemant Kumar Mandal. They threw bomb shells and set fire to several houses, including Nagendranath Baral's house, and destroyed several other houses with Khasherhat Bazar, Charbaniari School and Prafulla Kumar Roy's house.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    বালিয়াডাঙ্গা বাজার গণকবর/ Baliaadanga Market Mass Grave
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">বালিয়াডাঙ্গায় যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের গুলি শেষ হয়ে গিয়েছিল। পাকিস্তানীরা আল্লাহু আকবর বলে সরাসরি মুক্তিযোদ্ধাদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। এরপর পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে মুক্তিকামী যোদ্ধারা হাতাহাতি লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। এই যুদ্ধে অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা নিহত হয়। তাদের স্মরণে নির্মিত হয় নিন্মের ফলকটি।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">এই যুদ্ধে বহুলোক শহীদ হয়েছিলেন। কিন্তু সকলের নাম জানা সম্ভব হয়নি। সে কারণে ফলকে সকলের নাম লেখা হয়নি।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush; mso-bidi-language: BN;" lang="BN">***&nbsp;</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;">In Baliaadanga, freedom fighters were run out of bullets. The Pakistani Army attacked directly on the freedom fighters, saying &ldquo;Allah Akbar&rdquo;. Even then, the freedom fighters fought against the Pakistani army in a hand-to-hand fight. Here, numerous freedom fighters became martyr. The monument has been built in the remembrance of them.</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; line-height: 115%; font-family: Kalpurush;">Many were martyred in this genocide. But not everyone's name could be known. Because of that, not everyone's name was written on the monument.</span></p>
  • post-image
    ভাসা গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p>ভাসা গণহত্যা</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ভাসা গ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে রাজাকারদের একটি যুদ্ধ হয়েছিল ২ ডিসেম্বর। যুদ্ধে লোকবল এবং অস্ত্রসস্ত্রের অভাবে মুক্তিবাহিনী পরাজিত হয়। রাজাকার বাহিনী পিছন থেকে আক্রমণ করে তাঁদের হত্যা করে। শহীদ হয় আলফাজ হোসেন ননী</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">ওমর আবেদ আলী</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">আতাহার হাওলাদার</span><span style="font-family: SutonnyOMJ;">, </span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">আতিয়ার রহমান প্রমুখ।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: 'Times New Roman'; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">A battle between the Razakars and the freedom took place in Bhasa village on 2 December. The Mukti Bahini (freedom fighters) was defeated in the war due to lack of manpower and weapons. The Razakar forces attacked from behind and killed them. The martyrs were Alfaz Hossain Noni, Omar Abed Ali, Atahar Hawladar, Atiyar Rahman and others.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;">&nbsp;</p>
  • post-image
    কান্দাপাড়া গণকবর, বাগেরহাট
    <p>কান্দাপাড়া গণকবর</p>
  • post-image
    কান্দাপাড়া গণহত্যা, বাগেরহাট
    <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">কান্দাপাড়া গণহত্যা</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">১৮ জুন শুক্রবার রাজাকার কমান্ডার রজ্জব আলী ফকিরের নেতৃত্বে রাজাকার বাহিনী দুইভাগে ভাগ হয়ে একদল বাগেরহাট থেকে মুনিগঞ্জ খেয়া পার হয়ে বাগেরহাট-চিতলমারী সড়কপথে অগ্রসর হতে থাকে। অন্য একটি দল আসে ফকিরহাটের মুলঘর থেকে কুচিবগা খালের পথে। দিনটা শুক্রবার হওয়ায় অনেকে সেদিন জুমার নামাজ পড়বার জন্য মসজিদে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এমন রাজাকার</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">বাহিনী ও শান্তিকমিটির সদস্যদের প্রথম দলটি গ্রামে প্রবেশ করে। মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগী হিসেবে যাদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়েছিল রজাকার বাহিনী পালক্রমে তাদের সকলের বাড়ি গিয়ে হাজির হয়। বাড়িগুলোতে লুটতরাজ করা হয় এবং অভিযুক্তদের বেঁধে কান্দাপাড়া বাজারে এনে জড়ো করা হতে থাকে। অন্যতম অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেন মাস্টার<span style="mso-spacerun: yes;">&nbsp; </span>এবং ইব্রাহিম হোসেন মাস্টারকে বাড়িতে না পেয়ে ক্ষুব্ধ রাজাকাররা তাদের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। রাজাকারদের দ্বিতীয় দলটি কদমতলা গ্রামের কয়েকজনকে ধরে এনেছিল। এভাবে দুপুর গড়াতে না গড়াতে হামজা আলী সহ মোট ২৫ জনকে বেঁধে জড়ো করা হয় কান্দাপাড়া বাজারের রাস্তার উপর। পরে এদেরকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। মঞ্জুর মোল্লা সৌভাগ্যক্রমে বেচে যান। একজনকে নির্যাতন করে ছেড়ে দেয়া হয়।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: SutonnyMJ; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: AR-SA;">On Friday 18 June, a group of Razakar forces led by Razakar Commander Rajjab Ali Fakir divided into two groups and started advancing on the Bagerhat-Chitalmari road after crossing the Muniganj ferry from Bagerhat. Another group came from Mulghar in Fakirhat on the way to Kuchibaga canal. As the day was Friday, many were preparing to go to the mosque for Friday prayers. On that time the first group of Razakars and members of the peace committee (collaborators of the Pakistani army) entered the village. They went every houses of the listed freedom fighters. The houses were looted and the accused were tied up and brought to Kandapara market. One of the prime accused Delwar Hossain Master and Ibrahim Hossain Master were not found at home and the Pakistani army and Razakars set fire to their house. The second group of Razakars captured some people from Kadamtala village. Thus, a total of 25 people, including Hamza Ali, were tied up and gathered on the road of Kandapara Bazar. They were later brutally killed. Manjur Mollah fortunately survived. One was tortured and released.</span></span></p>
  • post-image
    কান্দাপাড়া বধ্যভূমি, বাগেরহাট
    <p>কান্দাপাড়া বধ্যভূমি</p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ;" lang="BN-BD">কান্দাপাড়ায় একাত্তরের ১৮ জুন গণহত্যা সংঘটিত হয়। বাগেরহাট পাকিস্তানী হানাদারদের একটি দল ও রাজাকারেরা একসঙ্গে কান্দাপাড়ায় হামলা চালায়। হানাদার বাহিনীর আসার খবর পেয়ে মুক্তিবাহিনী অন্যত্র চলে যায়। হানাদাররা গুলি চালাতে চালাতে গ্রামে প্রবেশ করে। এসময় অনেককে ধরে কান্দাপাড়া বাজারে নিয়ে জবাই করে হত্যা করে তারা। ১৯ জনকে হত্যা করা হয়েছিল সেদিন</span><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ; mso-bidi-language: HI;" lang="HI">।</span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-size: 14.0pt; mso-ansi-font-size: 11.0pt; line-height: 107%; font-family: SutonnyOMJ; mso-bidi-language: HI;" lang="HI"><span style="font-size: 12.0pt; line-height: 115%; font-family: 'Times New Roman','serif'; mso-fareast-font-family: SutonnyMJ; mso-ansi-language: EN-US; mso-fareast-language: EN-US; mso-bidi-language: BN;">In 1971, the Pakistani forces perpetrated genocide at Nikari Para of Karapara village. Along with others, pregnant women Boru Bibi were killed. On this day, the Pakistani forces mistakenly killed some of their supporters in this village. The house next to Karapara Primary School was owned by Sheikh Azizul Haque. They were happy to hear about the Pakistani army&rsquo;s arrival and shot the Pakistani flag. Hearing the sound of these shots, the Pakistani forces came and killed five people including Sheikh Azizul Haque and his brother-in-law SM Ismail Hossain without giving them a chance to speak.</span></span></p> <p class="MsoNormal" style="text-align: justify;"><span style="font-family: SutonnyOMJ;">&nbsp;</span></p>